ছবির বাজেট ৫ কোটি, শাকিবকে ৬০ লাখ

0
343

জাজ মাল্টিমিডিয়া এবার মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গল্প নিয়ে কাজ করছে। ছবির নাম এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তবে ছবিটি পরিচালনা করবেন ভারতের বাংলা ছবির অন্যতম জনপ্রিয় পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। ছবির বাজেট ধরা হয়েছে ৫ কোটি টাকা। ছবিতে অভিনয় করবেন শাকিব খান। এরই মধ্যে তাঁর সঙ্গে জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজের আলোচনা চূড়ান্ত হয়েছে। এই একটি ছবির জন্য নাকি শাকিব খান ৭০ লাখ টাকা পারিশ্রমিক চেয়েছেন। তবে জানা গেছে, প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান তাঁকে ৬০ লাখ টাকা দিতে রাজি হয়েছে।

প্রথম আলো অনলাইন সংস্করণে গত ৩১ মার্চ দুপুরে ‘৬০ লাখ টাকা নিলেন শাকিব!’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। ওই সময় শাকিব খানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কাছ থেকে খবরটি জানা যায়। তবে এ ব্যাপারে শাকিব খান এখনো কিছু বলেননি। কারণ, আলোচনা চূড়ান্ত হওয়ার পর সেদিন রাতেই তিনি স্কটল্যান্ডের উদ্দেশে রওনা দেন।

আজ শনিবার সকালে আবদুল আজিজ প্রথম আলোকে জানান, শাকিব খান এই ছবিতে কাজ করবেন, এটা চূড়ান্ত। আগামী জুলাইতে ছবির শুটিং শুরু হবে। পুরো গল্পটাই মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে। শাকিব খান যে ধরনের ছবিতে কাজ করেছেন, এটি সেগুলো থেকে একেবারেই আলাদা হবে। আর গল্প শোনার পর শাকিব খান নিজেও অভিনয়ের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

ছবির গল্প আবদুল আজিজ নিজেই ভেবেছেন। সেই গল্প অবলম্বনে ছবির চিত্রনাট্য লিখছেন দেলোয়ার হোসেন দিল। ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে কে অভিনয় করবেন, তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। নতুন কোনো নায়িকা থাকার সম্ভাবনা আছে। তা রাজ চক্রবর্তীর সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এরই মধ্যে ছবির আরেকজন শিল্পীকে চূড়ান্ত করা হয়েছে, তিনি মিশা সওদাগর।

ছবিটি পুরোপুরি বাংলাদেশের। প্রযোজনা করছে শুধুই জাজ মাল্টিমিডিয়া। তাহলে কলকাতার রাজ চক্রবর্তীকে পরিচালনার দায়িত্ব দিচ্ছেন কেন? আবদুল আজিজ বলেন, ‘এই ছবির ক্যানভাস অনেক বড়। আমি মনে করি, রাজ চক্রবর্তী তা যথাযথভাবে সামলাতে পারবেন।’

১ এপ্রিল থেকে স্কটল্যান্ডে কলকাতার পরিচালক জয়দ্বীপ মুখার্জির ‘ভাইজান এল রে’ ছবির শুটিং করছেন শাকিব খান। এ ছবিতে তাঁর বিপরীতে অভিনয় করছেন কলকাতার শ্রাবন্তী। ২২ এপ্রিল শাকিব খানের ঢাকায় ফিরে আসার কথা আছে। এরপর ওয়াজেদ আলী সুমনের ‘ক্যাপ্টেন খান’ এবং আশিকুর রহমানের ‘সুপারহিরো’ ছবির বাকি কাজ শেষ করার পরিকল্পনা আছে শাকিব খানের।

আর আবদুল আজিজ জানালেন, শাকিব খান ঢাকায় ফিরে আসার পরই নতুন ছবির ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে। জুলাই মাস থেকে টানা শুটিং হবে। তখন শাকিব খানকে এই ছবির শুটিংয়ে অনেকটা সময় দিতে হবে।

গত ২৮ মার্চ তাঁর জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শাকিব খান বলেন, ‘এখন থেকে নিয়মিত বড় বাজেটের সিনেমা প্রযোজনা করব। সেসব ছবিতে আমি অভিনয় করব। বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশের যৌথ প্রয়াসে ছবিগুলো নির্মিত হবে। শুধু তা-ই নয়, নতুন যারা কাজ করতে চায়, তারাও সুযোগ পাবে।’

শাকিব খান এখন বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারতের কলকাতায়ও সমানতালে ছবির কাজ করছেন। যাঁরা দেশে ও দেশের বাইরে ভালো কাজ করার চেষ্টা করছেন, তাঁদের বাধা না দিয়ে সহযোগিতা করার পরামর্শ দেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here