পাকিস্তানে গুলিতে প্রাণ গেল অন্তঃসত্ত্বা শিল্পীর

0
297

পাকিস্তানে পারিবারিক উৎসবে গান গাওয়ার সময় গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গুলিবিদ্ধ হয়ে অন্তঃসত্ত্বা এক সংগীতশিল্পীর মৃত্যু হয়েছে। এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন সংগীতশিল্পীরা। বিবিসি অনলাইনের খবরে জানানো হয়, ঠিক কোন পরিস্থিতিতে সামিরা সিন্ধুর (২৮) মৃত্যু হয়েছে, তা স্পষ্ট নয়।

গান গাওয়ার সময় উঠে না দাঁড়ানোয় সামিরাকে হত্যা করা হয় বলে একজন জানিয়েছেন। তবে পাকিস্তানে আটক বন্দুকধারী জানান, গুলি ছোড়ার সময় দুর্ঘটনাবশত সামিরার শরীরে লেগেছে। সামিরা আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে লারকানা এলাকার কাছে কাঙ্গা গ্রামে উৎসব চলাকালে এ গুলির ঘটনা ঘটে।

সংগীতশিল্পীর স্বামী আশিক সামু পুলিশের কাছে অভিযোগ করে বলেন, উৎসবের সময় এক ব্যক্তি তাঁর স্ত্রীকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়েন। তাঁকে ধমক দিয়ে দাঁড়াতে ও গান গাইতে বলেন। এ সময় সামিরা জানান, তিনি অন্তঃসত্ত্বা। উঠে দাঁড়াতে পারবেন না। এ সময় ওই ব্যক্তি তাঁকে গুলি করেন।

এই গুলির ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। তাঁর নাম তারিক জাতোই। আদালতের বাইরে তারিক জাতোই সাংবাদিকদের বলেন, তিনি ফাঁকা গুলি ছুড়ছিলেন। এ সময় ভুলবশত গুলি ওই শিল্পীর গায়ে লাগে। তারিককে পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হবে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করার দাবি জানিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, সামিরা সিন্ধু মঞ্চে বসে আছেন। তাঁর চারপাশে বাজনাদারেরা রয়েছেন। সবাই গান গাইছেন। এ সময় তিনজন ব্যক্তি মঞ্চে আসেন। প্রথা অনুসারে তাঁর চারপাশে টাকার নোট ছড়িয়ে দেন। সামিরা উঠে দাঁড়ান। গান গাইতে থাকেন। হঠাৎ একজন ব্যক্তিকে সেখানে দেখা যায়। তিনি তিনটি গুলি ছোড়েন। সামিরা পড়ে যান।

সামিরা সিন্ধু স্থানীয়ভাবে সংগীতশিল্পী হিসেবে জনপ্রিয়। সিন্ধি লোকগান এবং সুফি গানের ওপর তাঁর কমপক্ষে আটটি অ্যালবাম আছে। তিনি পারিবারিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানে জীবনমুখী গান করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here